তামারা হাসান আবেদ ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের নতুন চেয়ারপারসন নির্বাচিত

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের নতুন চেয়ারপারসন নির্বাচিত হয়েছেন বোর্ডের সদস্য ও ব্র্যাক এন্টারপ্রাইজেসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তামারা হাসান আবেদ। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারপারসন স্যার ফজলে হাসান আবেদের স্থলাভিষিক্ত হলেন। গত ২৫ জুলাই থেকে তাঁর এই নিয়োগ কার্যকর হয়েছে। তামারা হাসান আবেদ ২০১১ সালের জানুয়ারিতে বোর্ডের সদস্য এবং মার্চ মাসে সিন্ডিকেট সদস্য নির্বাচিত হন। ২০১৬ সালের ডিসেম্বর থেকে বিশ্ববিদ্যালয় বোর্ডের আর্থিক পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারপারসন হিসেবেও দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

মানসম্পন্ন উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার মাধ্যমে ভবিষ্যতের সচেতন নাগরিক ও দায়িত্বশীল তরুণ নেতৃত্ব গড়ে তোলার লক্ষ্যে ২০০১ সালে ব্র্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন স্যার ফজলে হাসান আবেদ। তিনি বলেন, “ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় আমার একটি গর্বের জায়গা। এর কৃতিত্ব শিক্ষার্থী এবং শিক্ষকদের। আজ এই ৮৩ বছর বয়সে আমি মনে করি নতুন নেতৃত্বের হাতে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্ব তুলে দিয়ে আমার সরে দাঁড়ানোর সময় হয়েছে।”

স্যার ফজলে আরও বলেন, “বৈচিত্রময় ভাবনা ও অভিজ্ঞতার মিলন যেখানে ঘটে, সেখানেই উদ্ভাবনশীলতা বিকশিত হয়। বৈচিত্রপূর্ণ অভিজ্ঞতায় ঋদ্ধ সদস্যদের সম্মিলনে সমৃদ্ধ হয়েছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ড। এই বোর্ডের সদস্যদের রয়েছে প্রতিষ্ঠান পরিচালনা, প্রশাসন, ব্যবসা-বাণিজ্য, গবেষণা, প্রযুক্তি, উন্নয়ন, শিল্প-সংস্কৃতিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে নেতৃত্ব দেয়ার অভিজ্ঞতা।”

দুই দশকের কর্মজীবনে তামারা হাসান আবেদের রয়েছে বিনিয়োগ ব্যাংকিং, বাণিজ্য এবং সামাজিক ব্যবসা উদ্যোগের ক্ষেত্রে বিস্তৃত অভিজ্ঞতা। ব্র্যাক এন্টারপ্রাইজেসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে তিনি আড়ং, ব্র্যাক ডেইরি এবং ব্র্যাক সিড অ্যান্ড অ্যাগ্রো এন্টারপ্রাইজসহ ১৩টি উদ্যোগের প্রধান। ২০০৮ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত ব্র্যাক ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ছিলেন তিনি।

তামারা আবেদ যুক্তরাষ্ট্রের কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফাইনান্স বিষয়ে এমবিএ করেছেন। শিক্ষাক্ষেত্রে অসাধারণ সাফল্যের স্বীকৃতিস্বরূপ বেটা গামা সিগমা সোসাইটি কর্তৃক তিনি সম্মানিত হয়েছেন। অর্থনীতিতে স্নাতক করেছেন লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিকস থেকে। ২০১০ সালের ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামে তাঁকে ‘ইয়াং গ্লোবাল লিডার’ হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হয়। আন্তর্জাতিক সংস্থা এশিয়া সোসাইটি থেকে তিনি পেয়েছেন ‘এশিয়া ২১ ইয়াং লিডার’-এর স্বীকৃতি। ২০১৪ সালে তিনি লাভ করেন ওয়ার্ল্ড উইমেন লিডারশিপ কংগ্রেসের ‘আউটস্ট্যান্ডিং উইমেন লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড’।

তামারা আবেদ বলেন, “ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারপারসন নির্বাচিত হয়ে আমি অত্যন্ত সম্মানিত বোধ করছি। সম্মানীয় ট্রাস্টিবৃন্দ, উপাচার্য, প্রশাসন এবং বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের পাশে থেকে তাঁদের সমর্থন যোগানো এবং অসাধারণ এই বিশ্ববিদ্যালয়টির উন্নয়নে কাজ করা - এটি আমার জন্য একটি বিশেষ সুযোগ। ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের মৌলিক উদ্দেশ্য হলো একটি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে জ্ঞান ও শিক্ষার উন্নয়ন এবং ভবিষ্যৎ নেতৃত্ব তৈরি করা। সেই উদ্দেশ্য অর্জনে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ড অঙ্গীকারাবদ্ধ।”

আমাদের কর্মস্থল

                

ব্র্যাক কুইজ

কোনটি দারিদ্র্য দূরীকরনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি কার্যকরী?

বিকল্প যোগাযোগ পন্থা