দরিদ্রবান্ধব নগর উন্নয়ন বিষয়ে প্রাক-বাজেট সংলাপ

মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে নগরদারিদ্র্য হ্রাসে রাষ্টীয় বিনিয়োগ নিশ্চিত করাই বড় চ্যালেঞ্জ

অপর্যাপ্ত সরকারি বরাদ্দ, অপ্রতুল জনবল, বর্তমান চাহিদার সঙ্গে অসঙ্গতিপূর্ণ বিধিমালা, ক্রুটিপূর্ণ উন্নয়ন পরিকল্পনা প্রভৃতি কারণে শহরের দরিদ্রদের চাহিদানুযায়ী সেবা দিতে পারছে না পৌরসভাগুলো। ৭ম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় নগর উন্নয়ন এবং নগর দারিদ্র্য হ্রাসকে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে অর্থনৈতিক উন্নয়ন ত্বরান্বিত করা, সার্বজনীন প্রবৃদ্ধি অর্জনে কৌশল নির্ধারণ এবং বৈষম্য হ্রাসে রাষ্টীয় বিনিয়োগ নিশ্চিত করা বড় ধরনের চ্যালেঞ্জ।

আজ সোমবার (২০ শে মে) বিকেলে রাজধানীর মহাখালীস্থ ব্র্যাক সেন্টারে দরিদ্রবান্ধব নগর উন্নয়ন বিষয়ে প্রাক-বাজেট সংলাপ অনুষ্ঠানে বিশেষজ্ঞরা এই অভিমত ব্যক্ত করেন। বিশ্বের বৃহত্তম উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক, মিউনিসিপ্যাল অ্যাসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (ম্যাব) ও পাওয়ার অ্যান্ড পারটিসিপেশন রিসার্চ সেন্টারের (পিপিআরসি) যৌথ উদ্যোগে এই সংলাপের আয়োজন করা হয়।

সংলাপে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী মোহাম্মদ আবদুল মান্নান এমপি। অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব এস এম গোলাম ফারুক, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. শহীদ উল্লাহ খন্দকার, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. শাহ কামাল, পরিকল্পনা কমিশনের সিনিয়র সচিব ড. শামসুল আলম। ব্র্যাকের ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী পরিচালক আসিফ সালেহ্ সভাপতিত্বে এই সংলাপের সঞ্চালনা করেন পিপিআরসি-র নির্বাহী সভাপতি ড. হোসেন জিল্লুর রহমান।

পরিকল্পনা মন্ত্রী মোহাম্মদ আবদুল মান্নান এমপি বলেন, ‘নগর দরিদ্রদের জন্য বর্তমান সরকার জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে বেশ কিছু উদ্যোগ নিয়েছে। যার মধ্যে আছে বহুতল ভবন নির্মাণ ও জমি বরাদ্দ এবং গৃহঋণ। ঢাকা এনভায়রনমেন্টালি সাসটেইনেবল ওয়াটার সাপ্লাই প্রজেক্ট, দেশের সকল সিটি করপোরেশনের রাস্তা, ফুটপাত, নর্দমা উন্নয়ন, গুরুত্বপূর্ণ নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প, দুর্যোগ ঝুঁকিহ্রাসে ভবন সুরক্ষা উন্নীতকরণ ইত্যাদি প্রকল্প বর্তমানে চলমান রয়েছে। ২০১৯-২০ অর্থ বছরে এই প্রকল্পগুলোর জন্য পর্যাপ্ত বরাদ্দ রাখা হবে।’

সংলাপে বিশেষজ্ঞ মতামত দেন স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ ড. তোফায়েল আহমেদ, ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ক্লাইমেট চেঞ্জ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট-এর পরিচালক ড. সলীমুল হক, ম্যাব-এর সভাপতি মো. আবদুল বাতেন এবং ব্র্যাকের নগর উন্নয়ন কর্মসূচির প্রধান হাসিনা মোশরফা, ম্যাব-এর সভাপতি ও বেড়া পৌরসভার মেয়র আব্দুল বাতেন, ম্যাব-এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও মাদারীপুর পৌরসভার মেয়র খালিদ হোসেন প্রমুখ। আলোচনায় অংশ নেন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, এডিবি, ওয়ার্ল্ড ব্যাংক, ডিএফআইডিসহ বিভিন্ন উন্নয়ন সহযোগী প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও গণমাধ্যম প্রতিনিধিবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে শহরাঞ্চলের দরিদ্রবান্ধব উন্নয়নের ভবিষ্যৎ ও চ্যালেঞ্জ বিষয়ক একটি পাওয়ারপয়েন্ট প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন ম্যাব-এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও মাদারীপুর পৌরসভার মেয়র খালিদ হোসেন। এতে বলা হয়, বাংলাদেশের ৩২৭টি পৌরসভার ২ কোটি ষোল লাখের উপরে বাসিন্দা। অথচ এই বিপুল জনগোষ্ঠীর সেবা দিতে স্থায়ী কর্মচারি আছেন মাত্র ৪৩ হাজার আর অস্থায়ী কর্মচারি ২২ হাজার। পৌরসভাগুলোর সেবা কার্যক্রম জোরদার করতে কিছু সুপারিশ তুলে ধরা হয়। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- পৌরসভাগুলোর বাজেট বাড়ানো, পৌর বিধিমালা যুগোপযোগী করা, পৌর কর্মচারিদের বেতন-ভাতা সরকারের রাজস্ব খাত থেকে প্রদান করা, নগরদরিদ্রদের আবাসন ব্যবস্থার প্রতি বিশেষ নজর দেওয়া, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থাপনা, পানি সরবরাহ এবং অবকাঠামো নির্মাণ ও উন্নয়নে বিশেষ নজর দেওয়া।

স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ ড. তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘কিছু পরিমাণে বাজেট বাড়ালেই সমাধান হবে না। শহরায়নের ঢেউ এখন গ্রামকেও সংকুচিত তরে ফেলছে। তাই উন্নয়নকৌশল নিয়ে নতুন করে ভাবতে হবে। আলাদাভাবে দরিদ্রদের উন্নয়ন পরের কথা, সাধারণ উন্নয়নকাজও ঢিমেতালে চলে।’

ম্যাব-এর সভাপতি আব্দুল বাতেন বলেন, ‘সীমিত সম্পদের সর্বোচ্চ ব্যবহারের চেষ্টা করেও আমরা কুলাতে পারছি না। জাতীয় বাজেটের দুই শতাংশও বরাদ্দ না থাকলে স্থানীয় সরকারগুলো কাজ করবে কীভাবে?’

ব্র্যাকের ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী পরিচালক আসিফ সালেহ্ বলেন,‘শহরের দরিদ্র মানুষের জন্য সরকার ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো যৌথভাবে গৃহায়ন কর্মসূচিতে অর্থায়ন করতে পারে। এছাড়া শহরে ক্রমবর্ধমান অভিবাসীর চাপ এবং অগ্নিকাণ্ডের দুর্ঘটনার দিকে আরও বেশি নজর দেওয়া দরকার।

আমাদের কর্মস্থল

                

ব্র্যাক কুইজ

কোনটি দারিদ্র্য দূরীকরনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি কার্যকরী?

বিকল্প যোগাযোগ পন্থা