ব্যতিক্রমী ‘ব্র্যাক-কুমন’ শিক্ষায় শিক্ষার্থীদের বিপুল সাড়া

‘ব্র্যাক-কুমন’ এর দ্বিতীয় কেন্দ্র উদ্বোধন করেন ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব ল্যাংগুয়েজ (বিআইএল) এর পরিচালক সৈয়দা সারওয়াত আবেদ।

দুই সপ্তাহ বিনামূল্যো ক্লাসের সুযোগ দিয়ে আজ উত্তরায় চালু হল দ্বিতীয় কেন্দ্র

শিশুদের মেধার বিকাশ ও গুণগত শিক্ষা উন্নয়নে ব্যতিক্রমধর্মী শিক্ষা-সহায়ক পদ্ধতি ‘ব্র্যাক-কুমন’ চালু হওয়ার পর থেকেই শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের কাছ থেকে বিপুল সাড়া মিলেছে। ইতিমধ্যে রাজধানীর ধানমন্ডিতে চালু হওয়া দেশের এই প্রথম শিক্ষা কেন্দ্রে আগামী দুই মাসের মধ্যে শিক্ষার্থী সংখ্যা ২শ ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

এ প্রেক্ষাপটে এই শিক্ষা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে আজ শনিবার (১১ই নভেম্বর, ২০১৭) উত্তরার ৩ নং সেক্টরের ১৩ নম্বর সড়কের ৫৪ নম্বর বাসায় ‘কুমন’ এর দ্বিতীয় কেন্দ্র উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধন করেন ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব ল্যাংগুয়েজ (বিআইএল) এর পরিচালক সৈয়দা সারওয়াত আবেদ। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন কুমন প্রকল্পের ইনচার্জ নেহাল বিন হাসান, উত্তরা সেন্টারের ইন্সট্রাক্টর মুনিয়া ইসলাম, ‘কুমন’ শিশুদের অভিভাবক সুনিদা উইতাকারান প্রমুখ।

উদ্বোধনকালে সৈয়দা সারওয়াত আবেদ বলেন, ‘শিক্ষা মৌলিক মানবাধিকারের একটি। আমি বিশ্বাস করি, কুমনের মাধ্যমে বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থার গুণগত পরিবর্তন হবে এবং আমাদের সন্তানেরা গণনা ও সামগ্রিক গণিতে আরও দক্ষ হয়ে উঠবে।’

নেহাল বিন হাসান বলেন, অনেক সময় বাচ্চাদের বোঝার ক্ষমতার সঙ্গে পাঠদান পদ্ধতির কিছুটা দূরত্ব থাকে। কুমন মেথড সে বিভেদ কমিয়ে আনতে সহায়তা করবে।

উদ্বোধনের পর উত্তরার কেন্দ্রটির ক্লাসে উপস্থিত শিক্ষার্থীসহ সংশ্লিষ্টরা।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ৪ থেকে ১৪ বছর বয়সী শিশুরা এই কেন্দ্রে ভর্তি হতে পারবেন। বৃহস্পতি ও শুক্রবার ছাড়া সপ্তাহের বাকি পাঁচ দিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত এটি খোলা থাকবে। গণিত, সাংগঠনিক নেতৃত্বসহ বিভিন্ন বিষয়ে উচ্চ শিক্ষিত এবং ভারত থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত পাঁচজন শিক্ষক প্রতিটি সেন্টারে পাঠদান করেন।

শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে প্রতিদিন ৪৫ মিনিট করে পাঁচটি পর্ব রাখা হয়েছে। একই পরিবারের দুইজন শিক্ষার্থী ভর্তি হলে একজনের বেতনের ২৫ শতাংশ ছাড় পাওয়া যাবে।

ভর্তির পূর্বে শিক্ষার্থীদের গণিতের একটি ফ্রি ডায়াগনস্টিক টেস্ট দিতে হবে। এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীর সামর্থ্য অনুযায়ী গণিতের দক্ষতা যাচাই এবং সে অনুযায়ী কুমন গণিত প্রোগ্রামের সঠিক মানদন্ড নির্ধারণ করা হবে। এই পদ্ধতিতে মানসম্মত শিক্ষা ও আন্তর্জাতিক মান বজায় রাখতে ‘কুমন’ পদ্ধতির শিক্ষায় শিক্ষকদের নিয়মিত প্রশিক্ষণের ওপর গুরুত্ব দেওয়া হয়।

এর আগে গত ৩ অক্টোবর রাজধানীর ধানমন্ডি-১৪ নম্বর সড়কে প্রথম শিক্ষাকেন্দ্রটির উদ্বোধন করেন ব্র্যাকের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারপারসন স্যার ফজলে হাসান আবেদ।

আয়োজকরা জানান, ২০১৯ সাল নাগাদ এই দুটি শিক্ষাকেন্দ্র পরিচালিত হবে ‘ব্র্যাক-কুমন’ শীর্ষক একটি পাইলট প্রকল্পের আওতায়। পরবর্তী পর্যায়ে ২০১৯ থেকে ২০২১ সালের মধ্যে ঢাকাসহ দেশের প্রধান শহরগুলোয় ২০টি কেন্দ্র চালু করার পরিকল্পনা আছে।

১৯৫৮ সালে জাপানের শিক্ষক তরু কুমন (Toru Kumon) শিক্ষার্থীদের নিজস্ব সামর্থ্য ও মেধা অনুযায়ী গণিত শেখাতে বিশেষ পদ্ধতি চালু করেন, যা 'কুমন' নামে পরিচিত। ব্র্যাক-কুমন উদ্যোগের আওতায় এই পদ্ধতি এখন বাংলাদেশে চালু হয়েছে। ১৯৫৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর কুমন কর্মসূচি আজ বিশ্বের ৫০টি দেশে বিস্তৃত হয়েছে এবং ৪২ লাখের অধিক ছাত্র-ছাত্রী এ পদ্ধতিতে শিক্ষা গ্রহণ করছে।

উল্লেখ্য, গণিতে শিশুর মেধা ও সামর্থ্য বিকাশের উদ্দেশ্যে ব্র্যাক শিক্ষা কর্মসূচির ১৭টি বিদ্যালয়ে ৫১০ জন শিক্ষার্থী নিয়ে পরিচালিত গবেষণার ভিত্তিতে বর্তমানে দ্বিতীয় পর্যায়ের পাইলট কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

আমাদের কর্মস্থল

                

ব্র্যাক কুইজ

কোনটি দারিদ্র্য দূরীকরনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি কার্যকরী?

বিকল্প যোগাযোগ পন্থা