ব্র্যাকের আয়োজনে ফ্রুগাল ইনোভেশন ফোরাম সমাপ্ত

সুবিধাবঞ্চিতদের কাছে শিক্ষাসেবা পৌঁছে দিতে সহজ ও ব্যয়সাশ্রয়ী উপায় উদ্ভাবনের তাগিদ

ব্র্যাকের নির্বাহী পরিচালক ডা. মুহাম্মাদ মুসা বলেছেন, ‘ভবিষ্যৎ প্রজন্মের উন্নয়ন ও বিকাশের জন্য সহায়ক শিক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তুলতে হলে আমাদের শিক্ষক, শিক্ষাপদ্ধতি ও শিক্ষাকর্মীদের ক্ষমতায়ন ঘটাতে হবে।’ আজ শনিবার (১১ নভেম্বর) সাভারে মানসম্মত শিক্ষার প্রসার বিষয়ে ‘ফ্রুগাল ইনোভেশন ফোরাম ২০১৭’-এর সমাপনী দিনের আলোচনায় তিনি একথা বলেন।

এই সম্মেলনের বিভিন্ন সেশনে অংশগ্রহণকারীরা বলেন, মানসম্মত শিক্ষার জন্য মানুষের মানসিকতার উন্নয়ন ও পরিবর্তন সাধন করতে হবে। বিশ্বের সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর কাছে শিক্ষাসেবা পৌঁছে দিতে আমাদের বিভিন্ন সহজ ও ব্যয়সাশ্রয়ী উপায় উদ্ভাবন করতে হবে ও সফলভাবে সেগুলোর প্রয়োগ ঘটাতে হবে।’

ব্র্যাকের উদ্যোগে ৯-১১ই নভেম্বর সাভারের ব্র্যাক সিডিএম-এ এই সম্মেলনে অনুষ্ঠিত হয়। শুক্রবার এর উদ্বোধন করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী অ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান এমপি। প্রথমদিন বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করেন অংশগহণকারীরা। শেষের দুইদিন সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত মোট ১৭টি সেশনে শিক্ষার মানোন্নয়নে উদ্ভাবন ও তার বিস্তারের বিষয়ে আলোচনা হয়। মানসম্মত শিক্ষা বিষয়ে ১১টি উদ্ভাবনী মডেল উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ, অস্ট্রেলিয়া, ভারত, নেপাল, দক্ষিণ আফ্রিকার শিক্ষাবিদরা। বিভিন্ন দেশের শিক্ষাব্যবস্থার উদ্ভাবনী বিষয়ে আলোচনা করেন দুই শতাধিক উন্নয়নকর্মী, সামাজিক উদ্যোক্তা, শিক্ষাবিদ এবং গবেষক।

সম্মেলনের সমাপনী দিনের উল্লেখযোগ্য অংশ ছিল - ‘শরণার্থী শিশুদের পড়াশোনা:সমস্যা ও সুপারিশ’ শীর্ষক আলোচনা। এতে আলোচনা করেন সেভ দ্য চিলড্রেন বাংলাদেশ-এর প্রকল্প পরিচালক আবদুল মুক্তাদির, ইউএনএইচসিআর-এর লার্ন ল্যাব ম্যানেজার জ্যাকুলিন স্ট্রেকার, ইউনিসেফ বাংলাদেশ-এর ইসিডি স্পেশালিস্ট মোহাম্মদ মোহসিন। এরপর ‘শিক্ষার ভবিষ্যৎ’ বিষয়ে প্যানেল আলোচনায় ছিলেন ব্র্যাকের নির্বাহী পরিচালক ডা. মুহাম্মাদ মুসা , নিউক্যাসল ইউনিভার্সিটির এডুকেশন পলিসির প্রফেসর ড. জেমস টুলি এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অ্যাক্সেস টু ইনফরমেশন (a2i) প্রোগ্রামের পলিসি অ্যাডভাইজার আনির চৌধুরী।

প্রথম দিনের আলোচনায় উল্লেখযোগ্য বিষয় ছিল - বৈশ্বিক শিক্ষাব্যবস্থায় পরিবর্তনের ধারা। এই বিষয়ে আলোচনা করেন ব্র্যাক শিক্ষা কর্মসূচির পরিচালক ড. সফিকুল ইসলাম, ডিএফআইডি-র এডুকেশন পলিসি টিমের সিনিয়র এডুকেশন অ্যাডভাইজার ইয়ান অ্যাটফিল্ড, পিয়ারসন-এর ইংলিশ অ্যান্ড স্কুলস বিভাগের গ্লোবাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর ফাতিমা দাদা। এরপর ছিল দক্ষিণ এশিয়ার প্রেক্ষাপটে শিক্ষার মানোন্নয়নে সরকাারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বের দৃষ্টান্ত ও গুরুত্ব বিষয়ে আলোচনা। এতে আলোচক ছিলেন আর্ক এডুকেশন পার্টনারশিপ গ্রুপের গবেষণা ও মূল্যায়ন বিভাগের প্রধান লি ক্রফার্ড, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অ্যাক্সেস টু ইনফরমেশন (a2i) প্রোগ্রামের এডুকেশনাল ইনোভেশনের পলিসি স্পেশালিস্ট আফজাল হোসেন সারওয়ার, দি এডুকেশন অ্যালায়েন্স-এর পরিচালক শ্বেতা আনন্দ অরোরা।

অনুষ্ঠানশেষে সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে ফোরামের সমাপ্তি ঘোষণা করেন ব্র্যাকের ঊর্ধ্বতন পরিচালক আসিফ সালেহ্।

উল্লেখ্য, গত চার বছর ধরে বিভিন্ন বিষয়ের উপর এই সম্মেলন আয়োজন করে আসছে ব্র্যাকের সোশ্যাল ইনোভেশন ল্যাব। এবারের সম্মেলনে অ্যাসোসিয়েট পার্টনার হিসেবে থাকছে প্রথম আলো এবং নলেজ পার্টনার হিসেবে থাকছে গ্লোবাল স্কুলস ফোরাম।

আমাদের কর্মস্থল

                

ব্র্যাক কুইজ

কোনটি দারিদ্র্য দূরীকরনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি কার্যকরী?

বিকল্প যোগাযোগ পন্থা